সহিহ ভার্চুয়াল জিহাদের কলাকৌশল এবং টেমপ্লেট মন্তব্য সমূহ

মূল তালিকা

ভূমিকা

আমাদের প্রাণাধিক প্রিয় ব্লগীয় ফেসবুকীয় জেহাদি ভাইবোন বন্ধুগণ দীর্ঘদিন ধরিয়া ব্লগে ফেসবুকে কতিপয় নাস্তিক এবং অবিশ্বাসী দ্বারা নিদারুণ নির্যাতিত এবং নিপীড়িত। নাস্তিকদের কঠিন এবং জটিল যুক্তিতর্কে টিকিতে না পারিয়া ব্লগীয় জিহাদের জেহাদীগণ প্রায়শই ব্যান চাই ব্যান চাই ফাঁসি চাই ফাঁসি চাই বলিয়া জিহাদের ধ্বনিতে আকাশ বাতাস প্রকম্পিত করিয়া তোলেন। অশ্লীল গালাগালির মোটামুটি বন্যা বয়ে যায়। তাহাদের প্রোফাইলে নিয়মিত রিপোর্ট করেন, আইডি হ্যাকের চেষ্টা করেন প্রায় প্রতিদিনই অসংখ্যবার। তাহাদের নাকের পানি চোখের পানি একত্র হইয়া বুড়িগঙ্গার জল বৃদ্ধি করে, কিন্তু কোনও লাভের লাভই হয় না। মার্ক জাকারবার্গের কাছে কান্নাকাটি করিয়া রিপোর্ট করিয়া শেষে নামাজে বসিয়া আল্লাহপাকের কাছে এত কান্নাকাটি করেন, কিন্তু কিছুতেই কোন কাজ হয় না। আল্লাহ পাকও কোন সাহায্য পাঠান না। না কোন ফেরেশতা, না কোন জ্বীন। দিনকাল বড়ই খারাপ। শুধু কী তাই? পুলিশ আর্মি র‍্যাব ডিবি সবার কাছে গিয়ে নিয়মিত কান্নাকাটিও করেন আমাদের মুমিন ভাইয়েরা। হাতে পায়ে ধরে নাস্তিকদের দমন করতে অনুরোধ জানান। তাহারা আর নাস্তিকদের সাথে যুক্তিতে কুলিয়ে উঠতে পারছেন না, তাই আর্মিকে তারা অনুরোধ জানান, ট্যাঙ্ক, গোলাবারুদ, সাবমেরিন নিয়া আসতে, যেন ঠেরোরিস্ট নাস্তিকদের দাঁতভাঙ্গা জবাব দেয়া যায়। কিন্তু আফসোস, কাজ হয় না। মার্ক জুকারবার্গ, আল্লাহ, ফেরেশতা বাহিনী, ডিবি পুলিশ র‍্যাব আর্মি সকলেই ফেইল।

বরঞ্চ দেখা যাইতেছে, ব্লগে নাস্তিকের সংখ্যা ক্রমশই বৃদ্ধি পাইতে পাইতে বর্তমানে জেহাদীগন বড়ই কোণঠাসা। চিপাচাপা দিয়া দুই একজন তাও একটু লেখেন বটে, কিন্তু সেগুলো এতটাই হাস্যকর হয়ে যায় যে, নিজেরাই হয়তো নিজেদের লেখা পড়িয়া সজোরে হাসিয়া ফেলেন। এমতাবস্থায় আমাদের ব্লগীয় জেহাদীগনের কোণঠাসা অবস্থা দেখিয়া বড়ই মনোকষ্ট লইয়া আলোচ্য লেখাটি পোস্টাইতেছি। আশা করি আমাদের ব্লগীয় জেহাদী ভাই বেরাদারগন এই মন্তব্যসমুহ হইতে উপকৃত হইয়া দোজাহানের অশেষ নেকী হাছিল করিবেন।

আসুন তবে মূল আলোচনায় প্রবেশ করি।

বিসমিল্লাহির রহমানির রাহিম।
আউজু বিল্লা হিমিনাশ শাইতানির নাস্তিকানির নাজিম।

কীভাবে হইবেন একজন স্বনামধন্য ভার্চুয়াল জেহাদী? কিভাবে ব্লগে জিহাদের মাধ্যমে কামাইবেন অসংখ্য নেকী, উন্নতবক্ষা হুর এবং সুডৌল পশ্চাৎ গেলমান? জিহাদের এই পদ্ধতি জানার জন্য এই পোস্টটি অবশ্যই প্রিয় তালিকায় প্রবেশ করান এবং দ্বীনের পথে দশ পা বাড়ান। নিশ্চয়ই তিনিই উত্তম হুরদাতা এবং উত্তম ছোহবতকারী।

জিহাদের

সহীহ্ ভার্চুয়াল জিহাদের জন্য প্রয়োজনীয় উপকরণ সমুহ

  • একটি কি-বোর্ড, মাউস, কম্পিউটার, ইলেক্ট্রিসিটি (এই সকল প্রযুক্তি ব্যবহারের পূর্বে আাবিষ্কারক ইহুদী-নাসারা-নাস্তিকদের গালাগালি করিতে ভুলিবেন না)।
  • বাংলা, উর্দু, আরবী সহজ ভাষা শিক্ষা পুস্তিকা (ছাপাখানার আবিষ্কারও তো ইহুদী নাসারাগো হাতে, তাদেরও গালি দিয়ে শুরু করুন)।
  •  একটি আনলিমিটেড ইন্টারনেট কানেকশন (ইন্টারনেটও ওদের আবিষ্কার!)।
  •  কোরান, বুখারী হাদিস, মুসলিম হাদিস এই সকল পুস্তক না হইলেও চলিবে। পড়া না থাকিলেও ব্যাপার না। এমনকি, ইসলাম বা কোরআন শব্দের মানে না জানিলেও চলিবে।
  •  কি-বোর্ডে কন্টোল সি, কন্ট্রোল ভি বাটন দুইখানি শক্ত হইতে হইবে।
  •  ফেসবুক একাউন্ট (ইহুদী নাস্তিক জুকার্বাগের উপরে ঠাডা পড়ুক), গোটা তিরিশেক আইডি।

এই সকল বিষয় জোগাড় হইলেই আপনি ভার্চুয়াল জিহাদের জন্য প্রস্তুত। এবার ইমান শক্ত করে বসে পড়ুন।

মুমিন মুসলমানের জন্য জিহাদের কমন টেমপ্লেট তৈরি শুরু হলো। ভার্চুয়াল জিহাদে ইহা সর্বদা কন্ট্রোল সি চাপিয়া কপি রাখিতে হইবে, প্রয়োজনমত শুধু পেস্ট করিলেই জিহাদ সফল, অন্যরাও (মৌলবাদী হিন্দু-খ্রিষ্টান-ইহুদী) কিঞ্চিৎ এদিক-সেদিক করিয়া ব্যবহার করিতে পারেন।

জিহাদের ছহি-ইসলাম-নয় যুক্তি

নাস্তিকরা যাহাই বলিবে, আপনারা কিছু না পড়েই নিচের কমেন্ট গুলো কপি করিয়া পেস্ট করিবেন। কী নিয়া আলোচনা তাহা জানা না থাকিলেও চলিবে।

  • ইহা ছহি ইসলাম নহে।
  • ঐগুলা ইহুদী নাসারাদের ষড়যন্ত্র, ইহুদী নাসারা মালাউনরা মুমিন মুসলমানের লোহার মত শক্ত ঈমান দেইখ্যা হিংসায় ইসলাম নিয়া মিথ্যা অপপ্রচারে লিপ্ত।
  • গুটিকয় মৌলবাদীর (সৌদী, পাকিস্তান, ইরান, আফগানিস্তান, আল কায়েদা আইসিস বকো হারাম এরা সবাই গুটিকয় মুসলিম!) জন্য ইসলামকে দোষারোপ করবেন না। কোনো ধর্মই খারাপ কিছু করতে বলে না। আসলে সব দোষ মানুষের। মানুষই ধর্মকে খারাপভাবে ব্যবহার করছে। ফলে ধর্মের দুর্নাম হচ্ছে।
  • ( এরপরে সহিহ হাদিস দেখালে) ঐগুলা দুর্বল হাদিস। (হাদিস তিন প্রকার, দুর্বল, সবল এবং হাস্যকর)
  • (এরপরে কোরআনের আয়াত দেখাইলে) অনুবাদে ভুল আছে, আপনি আরবী জানেন? আর এক-দুই লাইন নিয়ে এসে পুরো কোরআন কি বুঝবেন? এ সম্পর্কে জানতে হলে পুরো কোরআন পড়ুন।
  • (বিশিষ্ট অনুবাদকদের অনুবাদ দেখালে) আপনি কিছু না জেনেই কথা বলেন। আপনার সাথে তর্ক করা বৃথা। আপনাদের দিলে মোহর আটা তাই চোখ থাকতেও আপনারা অন্ধ!! আল্লা আপনার মঙ্গল করুক।
  • কোন প্রমাণ রেফারেন্স চাইলে- আপনি কি জারজ সন্তান? আপনি যে জারজ না তার প্রমাণ দেন।

ত্যানা প্যাচানো যুক্তি 

  1.  ( নাস্তিকরা যুক্তি উপস্থাপন করলে ) আপনি যেই কথা বললেন কোরআন থেকে তার রেফারেন্স দেন
  2. ( কোরআন থেকে রেফারেন্স দিলে ) আগের আয়াত পরের আয়াত কই? সেইগুলাও দেন। মাঝখান থেকে দিলে তো হবে না।
  3. ( আগের আয়াত পরের আয়াত দিলে ) তার আগের আয়াত পরের আয়াত কই? সেগুলাও দেন। এভাবে আগের আয়াত পরের আয়াত নিয়ে আধাঘণ্টা ত্যানা প্যাচান।
  4. ( পুরা কোরআন দিয়ে দিলে ) কোরআন বুঝতে হলে তো তাফসীর পড়তে হবে। তাফসীর কই? তাফসীর না দিয়ে তো আপনি চালাকি করলেন।
  5. ( ইবনে কাসীর, জালালাইন, তাবারীর তাফসীর দিলে ) ভাই, শুধু তাফসীর পড়লে তো হবে না। ছয়টা হাদিস গ্রন্থ পুরা পড়া লাগবে। হাদিস ছাড়া তাফসীর গ্রহণযোগ্য নয়।
  6. ( হাদিসের রেফারেন্স দিলে ) ভাই হাদিস বুঝতে হলে হাদিসের উসুল বুঝতে হবে। আপনি হাদিসের উসুল বোঝেন? সীরাত না পড়ে হাদিস বোঝা যাবে না।
  7. ( সীরাত থেকে রেফারেন্স দিলে ) ভাই, সীরাত পড়ার জন্য সালফেসালেহীনদের লেখা পড়তে হবে, তাবে তাবেইনদের বক্তব্য পড়তে হবে। সেগুলা না বুঝলে আপনি সীরাত বুঝবেন না।
  8. ( সালফে সালেহীন তাবে তাবেইনদের রেফারেন্স দিলে ) ভাই, ইসলামে অমুক তমুক লোকের বক্তব্যের দুই পয়সার দাম নাই। কোরআন হাদিসই আসল। আপনি কোরআন হাদিস না দিয়ে অন্যদের বক্তব্য চালিয়ে দিচ্ছেন কেন?
  9. ( আবার কোরআন হাদিসের রেফারেন্স দিলে ) ভাই, আপনাকে হাদিসের উসুল বুঝতে হবে।  এরপরে ৬ নম্বর থেকে আবার শুরু করুন। এভাবে চালিয়ে যান ত্যানা প্যাচানো। বেশি বিপদে পরলে গালি দেয়া শুরু করবেন।

যতক্ষণ-গুয়ের-ল্যাদা-থেকে-সুগন্ধ-না-পাওয়া-যায়-ততক্ষণ-গন্ধ-শুঁকিতেই-থাকুন যুক্তি

  • আপনার কথা শুনে হাসি পেয়ে গেল। হা হা হা। আপনাকে আরো অনেক পড়ালেখা করতে হবে। ইসলাম সম্পর্কে ভালভাবে না জেনেই ইসলামের সমালোচনা করা ঠিক না। ইসলামকে জানার জন্য কোরান-হাদিস পড়ুন। বুঝতে সমস্যা হলে বারবার পড়ুন। যতক্ষণ সবকিছু না বুঝছেন ততক্ষণ পড়তেই থাকুন। ইসলাম সম্পর্কে খণ্ডিত জ্ঞান দিয়ে ইসলাম বোঝা যাবে না।
  • এত কম পড়ালখা নিয়ে আপনি নিজেকে নাস্তিক দাবী করেন? শুনুন মশাই, ভাল নাস্তিকেরা কখনই ধর্মকে আক্রমণ করে না, মানষের বিশ্বাসকে আঘাত করে না।

প্রসঙ্গ ঘোরানো যুক্তি

  •  আপনি শুধু ইসলাম নিয়েই কেন লেখেন? পৃথিবীতে কি আর কোনো ধর্ম নাই?
  • এত সমস্যা থাকতে ইসলাম নিয়েই কেন আপনাদের এত মাথা ব্যথা বুঝি না। এই যে দেশের যানজট, বিদ্যুৎ সমস্যা, এগুলো নিয়েও লিখুন।
  • আপনার পরিপ্রেক্ষিত বুঝতে হবে, সেই সময়ের সমাজ ব্যবস্থা আর এই সময়ের সমাজ ব্যবস্থা এক নয়। কী বললেন? ইসলাম সর্বকালের জীবনাদর্শ হলে সময়ের পরিপ্রেক্ষিত কোথা থেকে আসছে? এসব প্রশ্নের উত্তর আল্লাই ভাল জানেন। আসুন এসব নিয়ে কথা বলে বৃথা সময় নষ্ট না করে অন্য কাজ করি, তার আগে চলুন নামাজটা সেরে আসি।
  • (মডারেট ভার্শন) আমদের মত গরিব দেশে ধর্ম ছাড়া অনেক important matter আছে কথা বলার জন্য। যেহেত আমাদের দেশের বেশির ভাগ মানুষ poor এবং তাদেরকে ধর্ম বলে যে কিছু নেই এইটা ভাবার সময়ও নেই, যেহেতু তারা কীভাবে দুইবেলা food খাবে তাই নিয়ে চিন্তিত সেহেতু সেই দেশের বেশির ভাগ মানুষ যেই ধর্ম মেনে চলে সেই সম্পর্কে উল্টাপাল্টা কথা বলে এবং নিজের মতামত দিয়ে অন্য মানুষের ব্যক্তিগত feelings hurt করার যুক্তিযুক্ততা যে যাই বলুক আমি খুঁজে পাই না। তার মানে এই নই যে আমি freedom of speech-এর fundamental principle-কে লঘু করছি.মনে রাখবেন আমাদের constitution-এ freedom of speech-এর provision এ বলা আছে “subject to any reasonable restrictions ……” [আর্টিকলে ৩৯(২)] পুরো clause টা important .

সস্তা জনপ্রিয়তা যুক্তি

  •  ইসলাম হলো পূর্ণাঙ্গ জীবনব্যবস্থা। পারলে কোরআনের একটা আয়াত ভুল প্রমাণ করে দেখান! সেরেফ আলোচিত হবার জন্য,সস্তা জনপ্রিয়তার আশায় এইসব আজেবাজে কথা বলছেন আপনি। আল্লাহ আমাদের মঙ্গল করুন।

(এই মন্তব্যের সাথে সাথে- ইনবক্সে মেসেজ দিনঃ কুত্তার বাচ্চা! তোর মায় তোরে ডাস্টবিনে জন্ম দিছে। তুই ফের নবিজিরে নিয়া একটা কথা বললে তোমার মায়ের জায়গামতো তোরে ান্দায়া দিমো। হনুমান আজাদগিরি ছুটায়া দিমো, ানকির পো!)

কোরান-হাদিসে-বিশ্বাসী-মুসলমান-বাদে-দুনিয়ার-সব-শালা-ইসলামবিদ্বেষী যুক্তি

  • আপনি নিশ্চয়ই মালাউন, মুসলিম নাম নিয়া ইসলামের নামে মিথ্যা কথা ছড়াচ্ছেন।
  • সব ইহুদী নাসারাদের চক্রান্ত, এই সব লিখে ইহুদী নাসারাদের থেকে কত পান?
  • আপনার ধুতি ঠিক আছে তো?
  • তা দাদা, কলকাতায় ইলিশের কেজি কত?
  • মোসাদ কেজিবি আর আমেরিকা এই লেখার জন্য কত দিলো?
  • মুসলিম আইডি নিয়ে হিন্দু শালারা ইসলামের বিরুদ্ধে মিথ্যা কথা ছড়ায়!
  • অন্য ধর্মের হয়ে ইসলাম নিয়ে কথা বলার অধিকার পান কোথা থেকে?
জিহাদের

মদন কুমার স্পেশাল যুক্তি 

  • আপনি তো ইসলামিক লজিক্যাল ফ্যালাসি করলেন
  • আপনে তো ভাই ডিজোনেস্টি করলেন
  • ডকিন্সের বইয়ে ১৩৩ নম্বর পৃষ্ঠায় লেখা আছে, খুন ধর্ষণ করা নাস্তিকদের ধর্মীয় দায়িত্ব।
  • আইজগে নাস্তিকদের কবর রচনা হয়ে গেল
  • আইজগে নাস্তিকতার জানাজা পড়াই দিলাম
  • নাস্তিকদের দাঁতভাঙ্গা জবাব দিয়ে দিলাম
  • আপনি তো ভাই মাডার হয়ে গেলেন
  • আপনি উসুল বুঝেন?
  •  আপনি আরবী বুঝেন?
  • আপনি তো ভাই দুই পয়সার নাস্তিক
  • আপনারে মরা পর্যন্ত চ্যালেঞ্জ
  • আপনি নিঃসন্দেহে একজন নাস্তিক ঠেরোরিস্ট

ভাল-নাস্তিক-খারাপ-নাস্তিক যুক্তি

  • দেখুন ভাই, ভাল নাস্তিক কখনও ধর্মকে আঘাত করে না। ভাল নাস্তিক হবার চেষ্টা করুন এবং আমাদের প্রাচীন ব্যবসার পেটে লাত্থি মারবেন না। ধর্ম বেচে দুটো পয়সা জোটে, আর ধর্মের কথা শুনিয়ে ভাল মানুষ সেজে ধুমায়া দুর্নীতি করলেও সবাই ভাল বলে। আর আপনি সেই ব্যবসাতেই বাম হাত ঢুকাইয়া দিলেন!
  • দেখেন না, ভাল নাস্তিকরা আমাদের কিছুই বলে না। যত আকামই করি না কেন, তারা পিঠ চাপড়ে দেয়!

কোরআন-আল্লার-বাণী-মুহাম্মদ-আল্লার-নবী যুক্তি

  • কোরআনের একটা-দু’টা লাইন নিয়ে কথা বলেন, তার আগের-পরের লাইন গুলো পড়ে তারপর বলেন। না হলে ভুলই বলে যাবেন।
  • কোরআন ১০০% বিজ্ঞানসম্মত। আপনি বিজ্ঞানের যা জানেন, তার সবই কোরআনে আছে। আপনি বোঝেন না দেখে বুঝতে পারেন না।
  • কোরআন আল্লাহর বাণী। তাই এটা ভুল হতেই পারে না।
  • আপনি কতটুক আরবী জানেন যে, কোরআনের অর্থে ভুল ধরেন?
  • পৃথিবীতে এক-একজন মুসলিমের কাছে ইসলাম এক এক রকম। সব যে এক হবে তা নয়। তাই সহি ইসলাম জানতে চাইলে মুহম্মদের জীবনদর্শন দেখুন।
  • (মুহম্মদ নিয়ে কোন কথা বললে) কোন সাহসে আমাদের নবীকে নিয়ে কথা বললেন? তোর মায়েরে &ঁ৳ঁ%&ঁ%&ঁঁ%৳#৳%*ঁ৳(আপত্তিকর শব্দ সেন্সর করা হলো)

হিন্দু ধর্ম নিয়ে কিছু বললে হিন্দুরা যা করবেন

  • দেখুন মিস্টার নাস্তিক! বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ। আপনি শুধু শুধু সনাতন ধর্মে বিশ্বাসীদের বিশ্বাসে আঘাত দিচ্ছেন! আপনি মূর্তির ইতিহাস, মা কালী সম্পর্কে কতটা জানেন? জগন্নাথ হলে আসুন একদিন, চা খেতে খেতে আলাপ করি, কবে আসছেন? (সাইড দিয়া ফোন দিয়া জগন্নাথ হলের হিন্দু গুণ্ডাদের ফোন দিয়া দিন তারিখ জানাইয়া রাখতে হবে, এবং ইসলাম ধর্ম নিয়ে কোন পোস্টে মজা করা হলে বগল বাজাবেন।)
  • আপনি আসলে সত্যিকারের নাস্তিক না। সত্যিকারের নাস্তিক হলে হিন্দু ধর্ম নিয়ে কথা বলতেন না।
  • আগে তো ভালই লিখতেন, হঠাৎ আপনার কী হলো? মুসলিমদের থেকে নিশ্চয়ই এটা লেখার জন্য টাকা পাচ্ছেন তাই না?

উৎকট চ্যালেঞ্জ যুক্তি

  • কোরআনের মতো একটা গ্রন্থ আগে লিখে দেখান। তারপর ইসলামের সমালোচনা করেন।
  • পারবেন জীবনে কোরআনের মত একটা সূরা লিখে দেখাতে? আপনি তো ভাল আপনার বাপ, তার বাপ, তার বাপ এরকম চৌদ্দ পুরুষ মিলেও পারবেন না। পৃথিবীর কেউ পারবে না।
  • সুরা লিখে দেখালে:  — মশাই, নকল না করে মৌলিক কিছু লিখুন না। এটা তো কোরআনের নকল হয়ে গেল।
  • মৌলিক কিছু লিখে দেখালে: — এটা কোরআনের মত হলো কই? এর সাথে কি কোরআনের তুলনা হলো?
  • কোরআনের মত মৌলিক সুরা লিখে দেখালে: — শালা তোর এত্ত বড় সাহস, তুই কোরআন বিকৃত করস, তোর ঠিকানা দে াঙ্গের পো, তোরে ুত্তা দিয়া যদি না োদাইছি তাইলে আমি এক বাপের পোলা না।

সীমাবদ্ধ-জ্ঞান যুক্তি

  • বিজ্ঞান সম্পর্কে জ্ঞান থাকলে আপনার জানা উচিত যে, প্রত্যেক পদার্থের ধর্ম আছে। আপনি তো ধর্মে বিশ্বাসী নন। এখন কী বলবেন?
  • আমিও একসময় আপনার মতই নাস্তিক ছিলাম, পরে জ্ঞান অর্জন করার পরে বুঝলাম, ঈশ্বর আছেন।
  • সীমাবদ্ধ জ্ঞান দিয়ে ঈশ্বরকে বোঝা সম্ভব নয়। (এবং এমন ভাব ধরুন যে, আপনি অসীম জ্ঞানপ্রাপ্ত হইয়া ঈশ্বর, ঘোড়ার ডিম, হাট্টিমাটিম টিম বিষয়গুলা বুঝিয়া ফেলিয়াছেন!)

কোথাও ধরা খাইলে রূপক বইলা চালাইয়া দেয়া যুক্তি

  • এগুলো আসলে রূপক অর্থে বলা, এটা বোঝার জন্য ব্যাখ্যা পড়তে হবে।
  • এখানে “মার দাও” বলতে আসলে রূপকার্থে “চুম্মা দাও” বোঝানো হয়েছে। ইসলাম জঙ্গিবাদ সমর্থন করে না।
  • ঐখানে “কল্লা ফালাও” বলতে আসলে “গলায় খাবার দাও” বুঝানো হয়েছে। আল্লাহ আসলে অসীম দয়ালু।

মরার পরে দেখা যাইবো কে ঠিক আর কে ভুল যুক্তি

  • ধরুন, মৃত্যুর পরে দেখা গেল পরকাল বলতে কিছু নেই। তাহলে আপনি বা আমি কারোই কিছু হবে না। কিন্তু যদি দেখেন পরকাল আছে, তাইলে আমি ঠিকই বেঁচে যাব, কিন্তু আপনি শেষ
  • চান্দু, ইচ্ছামত লাফালাফি কর। তোমাগো এই দাঁঁত কেলানি লাফালাফি খালি এই ইহকালেই। মরার পরে যখন তোমাগো পিছন দিয়া বাঁশ ঢুকাইব তখন বুঝবা মজা।

ভায়োলেন্ট জিহাদের যুক্তি

  •  আসিফ মহিউদ্দীন শয়তানের দুত, সে দেশের কোমলমতি মুসলিম ভাই বোনদের নাস্তিকতার শিক্ষা দেবার কাজে নিয়োজিত। সমগ্র মুসলিম জাহানের পক্ষ থেকে আসিফ মহিউদ্দীনকে মুরতাদ ঘোষনা করা হলো। তাকে সামনে পাওয়া মাত্র আল্লাহর নাম করে গলায় ছুরি চালায়া দিবেন। এতে আল্লাহ খুশি হয়ে নিশ্চিত ভাবে আপনার বেহেস্ত নসিব করবেন। বলেন আমিন। সুম্মা আমিন।

সবশেষে সকল টেমপ্লেট একত্রে

  • ভাইরে ধর্ম নিয়া এই চুলকাচুলকি বাদ দেওন যায় না?
  • একটা পোস্ট লেইখা কত পান ভাই বলেন তো?
  • আপনাদের বিবেক নাই।
  • নাস্তিকদের পোস্ট এড়ায়া চলবো এখন থেকে।
  • আপনি কি নিশ্চিত আপনার বাবাই আপনার জন্মদাতা? কিভাবে হলেন?
  • প্রতিটা পদার্থেরই ধর্ম আছে, কেবল আপনাদের মতো ইতরদের কোন ধর্ম নাই।
  • আপনারা কি আপনাদের মা-বোনদের রাস্তায় উলঙ্গ হয়ে চলা সমর্থন করেন?
  • পৃথিবীতে এত জিনিস ঘটতাছে, সেই সব বাদ দিয়া খালি ধর্ম নিয়া লেখেন কেন?
  • আপনারা তো হিন্দু, ইসলাম ধর্মের পিছনে লাগছেন কেন?
  • ানকিরপোলা, তর বাসার ঠিকানা দে। কসম খোদার, বাসায় আইসা কোপায়া যামু।
  • ছোটলোকের মতো কথা বলবেন না।
  • কই রোহিঙ্গাদের নিয়ে তো কিছু লিখতে দেখলাম না।
  • প্যালেস্টাইন নিয়ে লেখেন না কেন?
  • তোরা তো বান্দর থেইকা মানুষ হইছস, ধর্মের নাম শুনলে তো গায়ে চুলকানি লাগবোই।
  • আপনি বান্দর থেইকা মানুষ হইছেন- এইটা আপনার চিন্তা করতে ভালো লাগে?
  • জাকির নায়েকের ভিডিও দেখেন।
  • জাকির নায়েকের সমালোচনা করার আগে তার উচ্চতায় আসুন।
  • জাঁকির নায়েকের সাথে ডিবেটে যান।
  • ধর্ম কি আপনাগো োন্দায়?
  • ইসলাম নিয়ে বিভ্রান্তির কোনো স্থান নেই।
  • আপনি কোরআন বুঝে পড়ছেন?
  • এই হাদিসের রেফারেন্স কি?
  • কোরআনের আয়াত দিলে সবগুলো দিবেন, একটা বাদ দিয়ে অন্যটা দেন- এটাতো ভণ্ডামো।
  • আল্লাহ আপনাদের হেদায়েত দেক।
  • ছিঃ।
  • শুয়োরের বাচ্চা।
  • আল্লাহ আপনাদের ক্ষমা করুন।
  • সব শালা মালাউন, চিনি তো এইডিরে।
  • মুসলমান নাম নিয়া ইসলামের কুৎসা রটানো বাদ দিন।
  • হ্যাক থুঃ।
  • আপনি কোরআনে বিশ্বাস করেন না, তাহলে সেখান থেকে রেফারেন্স দিতে যান কেন?
  • মুহাম্মদ আয়েশাকে যখন বিয়ে করে তখন আয়েশা (রাঃ) বয়স ৫৭ বছর, দয়া করে মিথ্যা প্রচার করবেন না।
  • মুহাম্মদ ( সাঃ ) এর দাসীরা স্বেচ্ছায় তার সাথে ছোহবত করতো।
  • যুদ্ধবন্দিনীরা মুহাম্মদ (সাঃ ) এবং সাহাবীদের এর শৌর্যবীর্য দেখে মুগ্ধ হয়ে পিতা/স্বামী/পুত্রের লাশের উপর দিয়ে দৌড়ে গিয়ে তাদের সাথে ছোহবতে লিপ্ত হতো। কোনো জোর জবরদস্তির প্রশ্নই আসে না!
  • বিশ্বমানবতার কল্যাণের জন্যেই আল্লাপাক উনাকে বিবাহের জন্য জোরাজুরি করে আয়াত নাজিল করতেন। তাদের প্রতি মুহাম্মদ (সাঃ) এর কোন যৌনাকাঙ্ক্ষা ছিল না। নিতান্তই বাধ্য হয়ে, পৃথিবীর মানুষের কষ্টের কথা ভেবে তিনি বিয়ে করতেন।
  • কেন? আপনারা মানুষ নন।
  • আল্লার সৈনিকেরা জিহাদের পথে এক হও।
  • কথা একটাই – নাস্তিক খেদাও।
  • তর ব্যান চাই।
  • এই ভাদা, ইসলাম বিরোধী পোস্ট লেখার টাকা কি ইন্ডিয়া থেইকা আসে?
  • Click this link- এই লিংক থেকে দেখুন আসল হাদিস, আপনি মিথ্যা বলছেন।
  • কোরআনের ভুল ধরতে আসেন – পারলে একটা কোরআন লিখে দেখান।
  • বিজ্ঞান কি পেরেছে সূর্যের মতো একটা কৃত্রিম নক্ষত্র তৈরী করতে? তাহলে বিজ্ঞান-বিজ্ঞান করেন কেন?
  • নাস্তিকরা এত অহংকারী কেন?
  • পারলে একজন মৃত মানুষকে জীবিত করে দেখান।
  • বিজ্ঞানের নাম করে তো খুব সুন্দর ইসলামের কুৎসা গেয়ে গেলেন।
  • আমার মন্তব্য মুছছস ক্যান? [আদৌ কোন মন্তব্য না দিয়াই]
  • তুই কি বিজ্ঞান দিয়া কুরান জাস্টিফাই করতাছস- গর্দভের াচ্চা?
  • দোয়া করি, আল্লাহ আপনাদের যেন সঠিক পথ দেখান।
  • বিজ্ঞান দিয়ে কোরআন বিচার করাটা বোকামি- কোরআন দিয়েই বিজ্ঞানকে বিচার করতে হবে।
  • যেইদিন মরবি সেইদিন বুঝবি।
  • গরম বেশি পড়ছে না কি রে?
  • সাবধান হয়ে যা!
  • তোরে ব্লক করলাম- দুষ্ট গরুর চেয়ে শূন্য গোয়াল ভালো। (আসলে ব্লক না দিয়েই)
  • কুরআন কোনো মানব রচিত গ্রন্থ না, বিজ্ঞান মানব রচিত- এইটা কি মাথায় ঢুকে না?
  • ত্যানা প্যাচানো বাদ দেন তো ভাই।
  • আপনি তো দেখি মহাজ্ঞানী! আপনার শিক্ষাগত যোগ্যতা কি?
  • নাস্তিকদের বলছি, আল কোরআন বুঝে পড়ুন।
  • আজাইরা প্যাচাল।
  • দুইন্যাতে এত ধর্ম থাকতে খালি ইসলাম লইয়্যা লেখা লাগে কেন?
  • আপনি অসুস্থ আপনার চিকিৎসা দরকার।
  • নাস্তিকগো পোস্টে ডিফল্ট মাইনাস।
  • ারামজাদা। তোর মায়েরে …
  • ফেইসবুকে আর লিখবো না। – ফেইসবুক সিদ্ধান্ত নেক, হয় নাস্তিকরা থাকবে নাহয় আমরা থাকব। আল্লাহো আকবর। লাড়ায়ে টাকবীর!!!

উপসংহার

আশা করি, জিহাদের মন্তব্য টেমপ্লেটটি আপনাদের কাজে লাগিবে। মনে রাখিবেন, আলোচনা যে বিষয় নিয়াই হউক না কেন, আপনার ঘুরাইয়া ফিরাইয়া জিহাদের এই টেমপ্লেটটিই ব্যবহার করিতে হইবে। ধরুন আলোচনা হইতেছে বানু কুরায়জা গোত্র নিয়ে, সেখানে আপনি যেকোন টেমপ্লেট ব্যবহার করতে পারেন। প্রসঙ্গ নিয়া চিন্তা করিবার প্রয়োজন নাই। আশা করি জিহাদের এই টেমপ্লেট ব্যবহার করিয়া আপনারা দোজাহানের অশেষ নেকী হাছিল করিবেন। সবার জন্য আল্লাহ উন্নতবক্ষা হুরের ব্যবস্থা করুক, যাদের কিঞ্চিত আলুর দোষ আছে তাদের জন্য সুন্দর গেলমানের ব্যবস্থা করুক। আমীন।

জাজাকাল্লাহ খায়ের।

[ বহু পুরনো লেখা। পোস্ট কৃতজ্ঞতা, ফেসবুকের বেশ কয়েকজন ঘনিষ্ট বন্ধু, ছোট ভাই, বড় ভাই, আপু। তাদের নাম উল্লেখ করাটা ঠিক হবে কি না বুঝতেছি না বিধায় নাম বললাম না, তবে তাদের বিপুল উৎসাহেই এই পোস্টের জন্ম। ]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *